মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১০:৪৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম
লক্ষ্মীপুরে যুবলীগ নেতা হত্যা মামলায় ৫ নেতা কারাগারে রামগঞ্জে পারিবারিক বিরোধে শিক্ষিকাকে পিটিয়ে জখম জেলা আ.লীগের সম্মেলন আজ, শীর্ষ পদে লড়ছেন রামগঞ্জের দুই সিনিয়র নেতা রামগঞ্জে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরন উদ্ভোধন প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকবে, প্রতিহিংসা নয়- আওয়ামিলীগের প্রস্তুতি সভায় সিনিয়র নেতৃবৃন্ধ রামগঞ্জে ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতি অপূর্ব সাহা, সম্পাদক অমৃত লাল রামগঞ্জে নানা আয়োজনে কমিউনিটি পুলিশিং ডে পালিত রামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় সভা স্থগিত গাছের ডাল কাটাকে কেন্দ্র করে প্রান গেলো ভাইবোনের রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫০ শয্যায় উন্নীতকরন সিত্রাং মোকাবেলায় রামগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের জরুরি সভা রিজার্ভ কমে ৩৫ বিলিয়ন ডলারের ঘরে পানির নিচ থেকে মাটি তুলে আনতে গিয়ে নিখোঁজ তরুণ লক্ষ্মীপুরে দুই হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রামগঞ্জে শিক্ষকের উপর ছাত্রলীগ নেতার হামলা, বিচারের দাবিতে মানববন্ধন রামগঞ্জে বিদ্যালয় ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন রামগঞ্জে ইউপি সদস্যকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা ফাঁস লাগানো অবস্থায় ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার রামগঞ্জে ক্বওমী মাদরাসা ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে ফিকহী সেমিনার রাঙামাটিতে জশনে জুলুছে মুসল্লির ঢল



রামগঞ্জে জেলা পরিষদ মার্কেট জিয়া শপিংয়ে দোকান বরাদ্ধে অনিয়ম ও স্বজনপ্রিতি

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২০ জুন, ২০২১
  • ৬৬৭ Time View

জাকির হোসেন মোস্তান,রামগঞ্জ কন্ঠ,২০জুনঃ লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে জিয়া শপিং কমপ্লেক্সের দোকান বরাদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও স্বজনপ্রিতির অভিযোগ উঠেছে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাহাজান মিয়ার বিরুদ্ধে। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ৮৪টি দোকান বরাদ্ধের জন্য ২বছর পূর্বে টেন্ডার আহবান করে সিডিয়ারসহ দরখাস্ত জমা নিলেও নিয়মের কোন তোয়াক্কা না করে লটারী ছাড়াই তিনি এবং তার সহকারিদের আত্মীয়স্বজনের নামে দোকানগুলি বরাদ্ধ করে রাখেন। সম্প্রতি অপ্রদর্শিত লটারী দেখিয়ে সেই দোকানগুলি অধিক দামে বিক্রির বিষয়টি জানাজানি হলে বঞ্চিতরা আজ রবিবার সকালে চলমান কাজ বন্ধ করে মার্কেটে তালা মেরে দেন।

 

 

সুত্রে জানা যায়, ০১ অক্টোবর ২০১৮ ইং লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাহাজান মিয়া জিয়া শপিং কমপ্লেক্সের ৩য় তলায় দোকান বরাদ্ধের জন্য টেন্ডার আহবান করলে প্রায় ৭শত সিডিয়ারসহ দরখাস্থ জমা পড়ে। এরপর তিনি কোন লটারী পদর্শন না করেই চেয়ারম্যান এবং তার সহকারি রুবেল ও অঘোষিত সহকারি সায়েমের আত্মীয়স্বজনের নামে ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে গোপনে ৮৪টি দোকান বরাদ্ধ করে রাখেন। এতে অপেক্ষা করে বহু লোক দোকান না পেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন আবার অনেকে এখনো সিডিয়ারের টাকা তুলতে পারেন নাই। সম্প্রতি তিনি নিজের ইচ্ছামত অপ্রদর্শিত লটারী দেখাইয়া দোকানগুলি জামায়াত-বিএনপি নেতা কর্মী কাছে অধিক দামে বিক্রি শুরু করেন। বিষয়টি জানাজানি হলে দলীয় নেতাকর্মীসহ বঞ্চিতরা ৩য় তালার সমস্ত কাজ বন্ধ করে প্রধান পটকে তালা ঝুলিয়ে দেন। এ ছাড়াও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দ্বায়ীত্ব গ্রহনের পর তিনি এবং তার লোকজন পানিয়ালা বাজার, পানপাড়া বাজারসহ রামগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে সরকারি জায়গায় দখল করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ বহু ইমারাত গড়ে তুলেছেন।

 

বঞ্চিত হওয়া তোহিন নামের একজন জানান, ৩০ অক্টোবর ২০১৮ ইং তারিখে দুইটি দোকনের জন্য ৫ লক্ষ টাকার সিডিয়ারসহ দরখাস্থ জমা দিয়েছি। কিন্তু দুঃখ্যের বিষয় আমাদেরকে দোকান বরাদ্ধ না দিয়ে উনারা নিজেদের নামে বরাদ্ধ নিয়ে এখন বেশী মূল্যে কোন সিডিয়ার ছাড়াই অনিয়মের মাধ্যম্যে দোকান বরাদ্ধ দিচ্ছে।

 

 

রামগঞ্জ পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বেলাল আহম্মেদ জানান, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দোকানগুলি নিজের আয়ত্বে রাখার জন্য দুই বছর পূর্বে টেন্ডার আহবান করে সিডিয়ারসহ দরখাস্ত জমা নিলেও লটারী করেন নাই। এখন তিনি একটি সাজানো লটারী দেখাইয়া বেশী দামে বিক্রি শুরু করলে বঞ্চিতদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আরো অনেক জাগা দখলের অভিযোগ আছে।

 

উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম রুহুল আমিন জানান, এ দোকানগুলোর বিষয়ে কাহারো সাথে সমন্বয় না করেই তিনি অনিয়মের মাধ্যমে নিজস্ব লোকদের গোপনে বরাদ্ধ দিয়েছেন। সব চেয়ে দুঃখ্যজনক বিষয় হলো পানপাড়া বাজারে আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ের বরাদ্ধকৃত জাগা তিনি টাকার বিনিময়ে তার নিজস্ব লোককে বরাদ্ধ দিয়েছেন।

 

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহাজান মিয়া জানান, জিয়া শপিং কমপ্লেক্সের তয় তলায় ৮৪টি দোকান এবং পানপাড়া বাজারে দলীয় কার্যালয়ের জাগা বরাদ্ধের বিষয়ে কোন কথা না বলে এড়িয়ে যান ।



More News Of This Category



© All rights reserved © 2020 banglahost
Design & Developed by: ATOZ IT HOST
Tuhin