শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:২৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম
লক্ষ্মীপুরে যুবলীগ নেতা হত্যা মামলায় ৫ নেতা কারাগারে রামগঞ্জে পারিবারিক বিরোধে শিক্ষিকাকে পিটিয়ে জখম জেলা আ.লীগের সম্মেলন আজ, শীর্ষ পদে লড়ছেন রামগঞ্জের দুই সিনিয়র নেতা রামগঞ্জে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরন উদ্ভোধন প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকবে, প্রতিহিংসা নয়- আওয়ামিলীগের প্রস্তুতি সভায় সিনিয়র নেতৃবৃন্ধ রামগঞ্জে ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সভাপতি অপূর্ব সাহা, সম্পাদক অমৃত লাল রামগঞ্জে নানা আয়োজনে কমিউনিটি পুলিশিং ডে পালিত রামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় সভা স্থগিত গাছের ডাল কাটাকে কেন্দ্র করে প্রান গেলো ভাইবোনের রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৫০ শয্যায় উন্নীতকরন সিত্রাং মোকাবেলায় রামগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের জরুরি সভা রিজার্ভ কমে ৩৫ বিলিয়ন ডলারের ঘরে পানির নিচ থেকে মাটি তুলে আনতে গিয়ে নিখোঁজ তরুণ লক্ষ্মীপুরে দুই হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রামগঞ্জে শিক্ষকের উপর ছাত্রলীগ নেতার হামলা, বিচারের দাবিতে মানববন্ধন রামগঞ্জে বিদ্যালয় ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন রামগঞ্জে ইউপি সদস্যকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা ফাঁস লাগানো অবস্থায় ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার রামগঞ্জে ক্বওমী মাদরাসা ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে ফিকহী সেমিনার রাঙামাটিতে জশনে জুলুছে মুসল্লির ঢল



লক্ষ্মীপুরে অপহরণ ও লাশগুমের মামলা : অতঃপর গৃহবধু জীবিত উদ্ধার

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ৩০ মে, ২০২১
  • ৫৯৭ Time View

নিজস্ব প্রতিনিধি,রামগঞ্জ কন্ঠ,৩০মেঃলক্ষ্মীপুরে রায়পুরে পশ্চিম চরপাতা এলাকার গৃহবধু ইয়াসমিন আক্তার বিথিকে অপহরণ ও লাশগুমের অভিযোগে শশুর বাড়ির লোকজনকে আসামী করে আদালতে মামলার ৭ মাস পর ওই গৃহবধুকে জীবিত উদ্ধার করেছে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেষ্টিগেশন (পিআইবি)।

 

রোববার সকালে ঢাকা সাভারের নবীনগর এলাকা থেকে তাকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। পরে বিকেলে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট জুয়েল দেব এর আদালতে হাজির করা হয়।
পরে আদালতে ওই গৃহবধু ১৬৪ ধারা জবানবন্দি প্রদান করেছেন বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক মো. ফরিদ উদ্দিন। তিনি জানান, ইয়াসমিন আক্তার বিথিকে অপহরন ও তাকে হত্যা করে লাশ গুম করা হয়নি। সাতমাস পর তাকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। তদন্তের পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

 

অভিযোগ রয়েছে, গৃহবধু বিথির স্বামী আবদুর রব চাকুরী সুবাধে ওমানে থাকেন। এ সুযোগে অন্য পুরুষের সাথে পরক্রীয়া জড়িয়ে পড়েন। এসব বিষয়ে একাধিকবার সামাজিকভাবে দুই পরিবারের মধ্যে শালিস বৈঠকও হয়। এর জের ধরে ২০২০ সালের ২০ অক্টোবর বিকেলে শশুরবাড়ি থেকে ইয়াসমিন আক্তার বিথি কাউকে কিছু না বলে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা পয়সা নিয়ে আত্মগোপনে চলে যায়। এরপরের দিন রায়পুর থানায় গৃহবধুর শশুর আবদুল কাদের একটি সাধারন ডায়েরী করেন।

ঘটনার একমাস পরে ১৯ নভেম্বর ইয়াসমিন আক্তার বিথির বাবা বাবুল মিয়া বাদী হয়ে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ( রায়পুর-১) আদালতে অপহরন, লাশ গুমের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় আসামী করা হয় শশুর আবদুল কাদের,শাশুড়ী খুকি বেগম, আবদুল কাদেরের মেয়ের জামাতা আক্তার হোসেন ও বিনু আক্তারসহ ৪জনকে। পরে আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেষ্টিগেশন (পিআইবি) নোয়াখালীকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দেন।

তবে অভিযোগ রয়েছে, শশুরবাড়ির লোকজনকে ফাঁসাতে ইয়াসমিন আক্তার বিথির বাবা বাবুল মিয়া ও তার মা হাসিনা আক্তার মিলে এ অপহরন ও লাশগুমের নাটক সাজিয়েছে। দীর্ঘ সাতমাস নানা হয়রানীর শিকার হতে হয়েছে। এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা ও এ মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানান ক্ষতিগ্রস্তরা।

 

এদিকে আদালত প্রাঙ্গনে কান্নাজড়িত কন্ঠে আবদুর কাদের বলেন, কি অপরাধে অপহরন করে বিথিকে লাশগুমের মামলা দেয়া হয়েছে। এ মামলার কারনে দীর্ঘ সাত মাস ঘরে গুমাতে পারেনি। অর্থ ও সম্মানসব গেলো। এ ঘটনার পিছনে বিথির বাবা বাবুল, মা হাসিনা ও জেঠা সৈয়দ আহমদের ইন্ধনে এ মিথ্যা নাটক সাজিয়ে আমাদের পরিবারের বিরুদ্ধে এ মামলা দেয়া হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন তিনি।



More News Of This Category



© All rights reserved © 2020 banglahost
Design & Developed by: ATOZ IT HOST
Tuhin