মঙ্গলবার, ২১ মার্চ ২০২৩, ০৯:০৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম
রামগঞ্জে ০৩ প্রতিষ্ঠানকে ১১হাজার টাকা জরিমানা রামগঞ্জে মহান স্বাধীনতা দিবসের প্রস্তুতি সভা রামগঞ্জ প্রেসক্লাবের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত রামগঞ্জ প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত কমিটি কে জেড ফোর্স কর্তৃক সংবর্ধনা ও ঈদ উপহার রামগঞ্জে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে ৫টি ট্রলি আটক রামগঞ্জে কোরআনে হাফেজদের মাঝে যুবলীগ নেতার রান্না করা খাবার বিতরন লক্ষ্মীপুরে ভিক্ষুকের কোলে ৬ মাসের শিশুকে রেখে, একটু আসি বলে ফেরেননি মা রামগঞ্জে মৎস্য চাষে বাঁধা, গ্রামপুলিশসহ আহত ৪ রামগঞ্জে নুরু বীজ ও বাবুল বীজ ভান্ডারে ১০ হাজার টাকা জরিমানা সকলের সমন্বয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করতে হবে: আনোয়ার খান এমপি রামগঞ্জে আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত রামগঞ্জে দুর্বৃত্তের আগুনে পুড়লো দিনমজুরের বসতঘর বিএনপি বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করলে বরদাস্ত করা হবে না, ড. আনোয়ার হোসেন খান এমপি রামগঞ্জে শাহ্‌জালাল ইসলামী ব্যাংকের ১৪২তম শাখার উদ্বোধন রামগঞ্জে দিনব্যাপী প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত রামগঞ্জে জয়পুরা এস আর এম এস উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজে বার্ষিক ক্রীড়া ও পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত রামগঞ্জে বস্তাবন্দী মানুষের মাথার খুলি ও কঙ্কাল উদ্ধার রায়পুরে আ.লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে এক কিশোর নিহত, আহত ১০ রামগঞ্জ প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটির প্রথম সভা অনুষ্ঠিত লক্ষ্মীপুরে অটোরিকশা চালক হত্যায় গ্রেপ্তার ২



ভোটে জিতে বাড়িছাড়া অভিভাবকরা, পাল্টে গেল ফলাফলও!

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২২ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২৪০ Time View

রামগঞ্জ কন্ঠ ডেক্সঃ লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির নির্বাচনে অভিভাবক সদস্য পদে ভোটে জিতেও বাড়িছাড়া তিন অভিভাবক। এদিকে নির্বাচনের তিন দিন পর ভোট পুনরায় গণনা করে ফলাফলও পাল্টে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এতে প্রথম দিনের বিজয়ী মোজাম্মেল হোসেনের স্থানে হুমায়ুন কবির নামের একজনকে জয়ী দেখানো হয়।

আজ শনিবার (২২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী অভিভাবক পানিয়ালা বাজারের মুদি দোকানি মোজাম্মেল এ অভিযোগ করেন।

মোজাম্মেল বলেন, ‘শনিবার ইউএনও অফিসে পুনরায় ভোট গণনা করা হয়। কিন্তু এ বিষয়ে আমাদের কোনো কিছু জানানো হয়নি। এতে আমাকে বাদ দিয়ে হুমায়ুন কবিরকে চতুর্থ স্থানে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়। প্রথম দিনের গণনায় হুমায়ুন ১৪৫ ভোট পেয়ে পঞ্চম হয়েছেন। আমি মারধরের ভয়ে পুনরায় ভোট গণনার বিরুদ্ধে ইউএনওর কাছে অভিযোগ করতে পারছি না।’ ভয়ে তিনি নির্দিষ্ট কারো নামও বলেননি।

পুনরায় ভোট গণনার সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাপ্তি চাকমা, রামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হক, নির্বাচনের প্রিজাইডিং অফিসার ও উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন, বিদ্যালয়ের সদস্য প্রার্থী হুমায়ুন কবির ও জাকির হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে সভাপতি পদের নির্বাচন রবিবার (২৩ জানুায়ারি) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলা কার্যালয়ে আয়োজন করা হয়েছে। কিন্তু সদস্যরা এতে আতঙ্কিত। তাঁদের ভাষ্য মতে, উপজেলা কার্যালয়ে যাওয়ার পথে তাঁদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটতে পারে। বিদ্যালয়েই ভোটের আয়োজন করলে ভালো। পছন্দের প্রার্থীকে চাপিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনাও শোনা যাচ্ছে।

অভিভাবক সদস্যদের অভিযোগ, ২০ জানুয়ারি উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের পানিয়ালা উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির অভিভাবক ভোট হয়। ভোট শেষে গণনায় ৯ জন প্রার্থীর মধ্যে ইব্রাহিম খলিল, রফিকুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর হোসেন ও মোজাম্মেল হোসেনকে সদস্য পদে বিজয়ী ঘোষণা করেন প্রিজাইডিং অফিসার আনোয়ার হোসেন। সে রাতেই সভাপতি প্রার্থী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও রামগঞ্জ পৌরসভার কাউন্সিলর কামরুল হাসান ফয়সাল মাল ও তাঁর লোকজন নির্বাচিতদের বাড়িতে যায়। এ সময় আশপাশের লোকজনের কাছে ওই সদস্যদের উদ্দেশ্য করে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেওয়া হয়। বিষয়টি জানতে পেরে নির্বাচিত অভিভাবক সদস্যরা ওই রাত থেকেই বাড়িছাড়া বলে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, নির্বাচিত চারজন সদস্য, একজন মহিলা সদস্য, একজন দাতা সদস্য ও তিনজন শিক্ষক প্রতিনিধি ভোটের মাধ্যমে সভাপতি নির্বাচন করবেন। সভাপতি পদে লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, আল মদিনা ফার্মাসিউটিক্যালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও জাতীয় পার্টি নেতা জাকির হোসেন পাটওয়ারী, ছাত্রলীগ নেতা কামরুল হাসান ফয়সাল মাল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সদস্য নির্বাচনে জাকির হোসেনের প্যানেল নির্বাচিত হয়েছে।

অভিযোগ রয়েছে, ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল কমিটির সভাপতি হতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। ফয়সাল লক্ষ্মীপুর-১ (রামগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ার হোসেন খানের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। সেই সূত্রে তিনি প্রিজাইডিং অফিসারকে ম্যানেজ করে নিজের প্রার্থী হুমায়ুনকে জয়ী করতে ব্যালট পেপারে পরিবর্তন এনেছেন। পরে হুমায়ুনকে দিয়ে অভিযোগ করিয়ে ভোট পুনরায় গণনা করা হয়।

মোজাম্মেল হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ১৪৭ ভোট পেয়ে চতুর্থ স্থানে তিনি সদস্য নির্বাচিত হন। দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসার বিজয়ীদের নামও ঘোষণা করেন। ওই দিন রাতেই কয়েকজন তাঁকে বাড়িতে খুঁজতে আসে এবং হুমকি দিয়ে যায়। স্থানীয়দের কাছ থেকে বিষয়টি জানতে পেরে হামলার ভয়ে তিনি রাতে বাড়িতে থাকছেন না। ভয়ে তাঁকে পালিয়ে থাকতে হচ্ছে।

এ বিষয়ে জানতে সভাপতি প্রার্থী কামরুল হাসান ফয়সাল মালের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করেও সাড়া মেলেনি। তবে তাঁর ঘনিষ্ঠ একজন দাবি করছেন, অভিভাবকদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ সঠিক নয়।

দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আবেদনের ভিত্তিতে ইউএনওর উপস্থিতি ভোটগ্রহণ হয়েছে। রবিবার (২৩ জানুয়ারি) ১২টার দিকে উপজেলা কার্যালয়ে সভাপতি পদে ভোটগ্রহণ। কোনো সদস্যকে কেউ হুমকি দেওয়ার বিষয়টি আমাদেরকে জানানো হয়নি। কাউকে যদি হুমকি দেওয়া হয়, থানা পুলিশকে জানালে তারা ব্যবস্থা নেবে।’

এ ব্যাপারে রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাপ্তি চাকমা বলেন, হুমায়ুন অভিযোগ করেছেন প্রথম দিন ভোট গণনায় ভুল হয়েছে। পুনরায় ভোট গণনা করলে তিনি ভোটে জয়ী হবেন। তার অভিযোগের ভিত্তিতে পুনরায় ভোট গণনা করলে তিনি জয়ী হন। এতে মোজাম্মেল বাদ পড়েন। পুনরায় ভোট গণনার বিষয়টি প্রত্যেক প্রার্থীকেই ফোনে জানানো হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। সূত্রঃ কালের কন্ঠ।



More News Of This Category



© All rights reserved © 2020 banglahost
Design & Developed by: ATOZ IT HOST
Tuhin